1. bplive24@gmail.com : admin2020 :

বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৩৮ পূর্বাহ্ন

আজমিরীগঞ্জে বাল্যবিবাহ পন্ড,  অভিবাবককে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড

আজমিরীগঞ্জে বাল্যবিবাহ পন্ড,  অভিবাবককে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার- আজমিরীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ফতেপুর গ্রামে আয়োজিত বাল্যবিবাহ পন্ড করে দেয়া হয়েছে। একই সময় অপ্রাপ্তবয়স্ক কিশোরীর পিতা-মাতা কে না পেয়ে বড় ভাইকে নগদ ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেছেন সহকারী কমিশনার ( ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ শফিকুল ইসলামের ভ্রাম্যমাণ আদালত। তবে ওই বিয়ে নিয়ে এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে ধূম্রজাল। সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়ে গেছে। গতকাল শুক্রবার ছিল বিয়ের দাওয়াত খাওয়ানোর অনুষ্টান।
জানা যায়,
 আজমিরীগঞ্জ ১নং সদর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ফতেপুর গ্রামের বাসিন্দা মোঃ গিয়াস উদ্দিন ও মোছাঃ সঞ্জুমন বিবি’র কিশোরী মেয়ে ও মিয়াধন মিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মোছাঃ চাঁদনুর আক্তার (১৩) এর একই এলাকার নগর গাংপাড় হাটির বাসিন্দা মোঃ শহীদ মিয়ার পুত্র সৌদি প্রবাসী মোঃ শামীম মিয়া (৩৬)’র সহিত গতকাল শুক্রবার বিয়ের আয়োজন করে তাদের অভিবাবকরা। এদিকে গোপনসূত্রে খবর পেয়ে, অভিযানে নামেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম। এরই ধারাবাহিকতায় ঘটনাস্হলে উপস্হিত হয়ে অপ্রাপ্তবয়স্ক কিশোরীর বাল্যবিবাহ বন্ধ করে দেন। একই সময় ঘটনাস্থলে কিশোরীর পিতা-মাতাকে না পাওয়ায় তার বড় ভাই-কে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন, ২০১৭ এর অধীন ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং ঐ কিশোরীর বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেয়া হবে না মর্মে মুচলেকা নেয়া হয়।
ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন, সহকারী কমিশনার ( ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট  মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম।
এ সময় আইন শৃঙ্খলায় সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করেন আজমিরীগঞ্জ।  থানা   পুলিশের  একটি টিম।
অপরদিকে একটি সূত্র জানায়, মোছাঃ চাঁদনুর আক্তার (১৩) এর সহিত মোঃ শামীম মিয়া (৩৬)’র  গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উভয়ের শুভবিবাহ সম্পন্ন হয়ে গেছে। গতকাল শুক্রবার কনের বাড়িতে বিয়ের দাওয়াত খাওয়ার আয়োজন করা হয়েছিল। উক্ত বিয়ের অনুষ্টানে চলতি ২০২১ ইং সনের ৬ সেপ্টেম্বর তারিখে ১নং আজমিরীগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক ইস্যুকৃত মোছাঃ চাঁদনুর আক্তারের জন্মসনদপত্র দাখিল করা হয়েছে। দাখিলকৃত জন্মসনদপত্রে জন্ম তারিখ দেখানো হয়েছে ২০০৩ ইং সনের ১০ ফেব্রুয়ারি। উক্ত জন্মসনদ অনুযায়ী তার বয়স ১৮ বছর ৭ মাস।
কিন্তু ২০০৮ ইং সনের ২০ নভেম্বর তারিখে একই ইউনিয়ন পরিষদ ইস্যুকৃত জন্মসনদপত্র ও বিদ্যালয়ের প্রত্যায়ন পত্র অনুযায়ী জন্ম তারিখ দেখানো হয়েছে ২০১৬ ইং সনের ১৭ নভেম্বর। উক্ত জন্মসনদ অনুযায়ী একই কিশোরীর বয়স ১২ বছর ৯ মাস ২১ দিন।

শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2020 bijoyerprotiddhoni
Developed BY ThemesBazar.Com